মায়া দেবী -ফাইয়াজ ইসলাম ফাহিম

এলোকেশ ছড়িয়ে মায়াদেবী বসে ছিল মধুমতী নদীর তীরে, হস্তে কঙ্কণ ছিল না আলতার অঙ্কণ ছিল না শুধু হরিদ্রা রঙ্গের একটি ফুল ছিল/ এলো কেশ গুলো দুলছিল নাসিকা ভালবাসার সুঘ্রাণে ফুঁসে ছিল, অক্ষির তারকা মিটমিট করে জ্বলে ছিল দন্তের চিকনাইয়ে সবিতা মেঘ রাজ্যে পলায়ন করেছিল আরক্তিম ওষ্ঠ কি যেন কি বলছিল? আমি কিছু শুনিনি মায়াদেবীর বচন […]

আরও পড়ুন

আল মাহমুদের জানাজা সম্পন্ন, দাফন গ্রামের বাড়িতে

বাংলা সাহিত্যের অন্যতম প্রধান কবি আল মাহমুদের দ্বিতীয় জানাজা সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার দুপুরে বায়তুল মোকাররমে দ্বিতীয় জানাজা শেষে তার মরদেহ মগবাজারের বাসায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। কবির বড় ছেলে শরিফ মাহমুদ এ তথ্য জানিয়েছেন। শনিবার দুপুরে তিনি বলেন, ‘এখন আল মাহমুদকে আবার মগবাজারের বাসায় নিয়ে যাওয়া হবে। এরপর তাকে গ্রামের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মোড়াইল গ্রামে নিয়ে যাওয়া […]

আরও পড়ুন

বিজয়ের গল্প :অপারেশন উলন পাওয়ার স্টেশন ১৯৭১

রামপুরা থানার আঁধারে ঢাকা ডিআইটি সড়ক থেকে রিকশা করে উলনের পথে রওনা হয়েছিলেন নীলু, গাজী এবং মতিন। ভয়হীন মনে উদ্দেশ্য একটাই-উলন বিদ্যুৎকেন্দ্র ধ্বংস করে পাক হানাদার বাহিনীকে পঙ্গু করে দেওয়া। বিদ্যুকেন্দ্র পাহারায় থাকা রাইফেলধারী পুলিশ ও নিরাপত্তা প্রহরীরা কিছু বোঝার আগেই তাদের দিকে বন্দুক তাক করেন গাজী ও নীলু, বলেন, “চুপ! খোদার কসম, একদম ঝাঁঝরা […]

আরও পড়ুন

বিজয়ের গল্প :রাজারবাগ প্রথম সশস্র প্রতিরোধ ১৯৭১

  সকাল গড়িয়ে দিনের সূর্যটা যতোই তাপ ছড়াতে থাকে, ততই আশঙ্কা-আতঙ্ক বাড়তেই থাকে। ক্রমেই আতঙ্কের কালো ছায়া দেখা দেয় বাংলার আকাশে। দুপুরের দিকে বিভিন্ন সোর্সের থেকে খবর আসে যে রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে আক্রমন হতে পারে। খবরটা আসার সাথে সাথে বাঙালী পুলিশেরা একত্রিত হতে থাকে। সন্ধ্যা পার হয়ে যেতে থাকে, থমথমে উত্তেজনা রাজারবাগের পুলিশ লাইনের মোটা […]

আরও পড়ুন

মিঃ হাউডি ভূতের গল্প

হাউডি! -হাউডি। শুষ্ক কন্ঠে উইলিয়াম্‌স এর অভিবাদনের জবাব দিল মাইক। -শহরে নতুন দেখছি মনে হয় তোমাকে?? -ঠিক ধরেছ। -বেশ বেশ…ভাল কথা, আস্তাবলের কালো বিশাল স্ট্যালিয়নটা কি তোমার? দারুন ঘোড়া!! -হ্যাঁ, ওটা আমারই ঘোড়া, কেন? -ঘোড়াটা আমার খুব পছন্দ হয়েছে। ওটার জন্য কত চাও? মেজাজটা গরম হয়ে গেলেও তা প্রকাশ না করে মাইক জানালো, -ওটা বিক্রির […]

আরও পড়ুন

অাচ্ছাদন

স্বপ্ন দেখি দু-নয়নে, দেহের মানচিত্রে হায়েনার অাঁচর। দু-চোখ; অঝোরে ঝরছে লাল রক্তরস উষ্ণ হৃদয়ে তার__গোধূলি লেগে আছে। খাদ্য পাগলাটা মরিয়া হয়ে খোঁজে এক মুঠো ওদন, লীলাক্ষেত্রের পুব থেকে উত্তরে , দ্বারে-দ্বারে,ঘুরে ফেরে_____যাচ্ঞনা____মাগি। পৌষের শীতে__স্তব্ধ গ্যাসপোস্টে চিহ্ন রেখে নির্জীব রাস্তায় ছটা কম্বল গায়ে ভিখেরিনীটা দিশেহারা ; পড়ছে সৃষ্টির প্রথম পান্ডুলিপি। আবিষ্কারে ব্যস্ততম প্রাণ; রপ্ত করে কোটি […]

আরও পড়ুন

চিরচেনা’র স্মৃতিচারণ

চিরচেনা’র স্মৃতিচারণ চিরচেনা প্রেরকের ঠিকানা হতে, বহুদিন কোনো ডাকপিওন আসেনি এ পথে! চিরচেনা কলারের ডায়ালপ্যাড হতে, বহুদিন কোনো নাম ভাসেনি মুঠোফোনের স্ক্রিনে! চিরচেনা শরীরের চিরচেনা নীল শার্টে, বহুদিন কোনো সুগন্ধি খুঁজিনি অকপটে! চিরচেনা নীল রঙের অন্তরালে, বহুদিন হারাই না আনমনে। তবু বারবার ‘কন্ট্যাক্টস’ খুলে, খানিকক্ষণ থমকে দাঁড়াই ‘চিরচেনা’র নামের কাছে! অতপর আধপোড়া হৃদপিণ্ডের সাথে, হারিয়ে […]

আরও পড়ুন

ভয়

ভয় সত্য কথা গুলো শুনতে সবসময় তিতা লাগে। তবুও বলছি। শিশুরা মায়ের কাছ থেকে অনেক কিছু শেখে তার মধ্যে ভীরুতা ও শেখে। কোনো শিশুই জন্মের পরে ভয় কি জিনিষ জানে না, সেটা মায়েরা খুব সুন্দর করে ঢুকিয়ে দেয়। একটি অবুঝ শিশু একটি লাশের উপর গিয়ে তার খেলার পুতুল নিয়ে আসতে পারবে কিন্তু একটি ৫ বছরের […]

আরও পড়ুন

নিয়‌তি‌ক্লিষ্ট দান

আজ আমি হেঁ‌টে যা‌চ্ছি একা- অথচ তু‌মি ডাক‌লে আমি ঠিকই যেতাম- আস‌লে আমি জান‌তেই পা‌রি‌নি- বৈধ ও অবৈধতার সুক্ষ ভেদা‌ভেদ, জৈ‌বিক ও আধ্যা‌ত্মি‌কের মধ্যকার দূরত্বটুকু? তাই চাপা রোমা‌ন্টিকতা নি‌য়ে নিঃশ‌ব্দে বে‌ড়ে উঠে‌ছিল গোলা‌পের বাগান! আর এক‌দিন তোমার চো‌খে ময়া‌লের স্নিগ্ধতার অন্তর্বাস নজ‌রে এ‌লে, না বলা প্রণ‌য়ের কথা ভে‌বে আমার হলো দিবাঅবসান- এ যেন স‌ত্যি তোমার […]

আরও পড়ুন

বিভ্রান্ত

সহস্র প্রণয়ী লতার, নিদ্রাহীন অবসাদের ক্রন্দনেও ভাঙ্গে না; মুখোশীয় প্রিয়তমার ভঙ্গুর দেহ! তবে; সে কী নিছক কল্পনা! যাকে শুধুই, বিরহের নামে ডাকা যায়। লেখা যায় অন্ধ রাজার কাব্য! একটি অসমাপ্ত ভালোবাসার উপন্যাস। লেখালেখি, অপূর্ব দাস অপু।

আরও পড়ুন